FM স্যারের পরিচিতি


ইলেকট্রনিক মিডিয়া Independent TV)কর্তৃক স্বীকৃত ও টকশোতে প্রচারিত এ দেশের ইংলিশ গুরু অধ্যক্ষ মোহাম্মদ ফিরোজ মুকুল (FM স্যার) শুধুমাত্র বাংলাদেশেই নয় বরং সম্ভবত সমগ্র পৃথিবীতে একমাত্র সফল গবেষক, English Teaching Methodist| Proper Methodology of Teaching English to the Bengali Speaking People এর উপর ১৯৮৬ সাল থেকে গবেষণা করে তিনি বাংলাভাষাভাষী মানুষদেরকে মাতৃভাষা বাংলার মাধ্যমে কিভাবে অত্যন্ত সহজ ও বিজ্ঞানসম্মত উপায়ে ইংরেজি শেখাতে হবে তা পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর English Teaching Methodology FM Method উদ্ভাবন করেছেন। Tense-Grammar-Structure ছাড়াই বাংলা বাক্যের ’শেষ শব্দের’ উপর ভিত্তি করে FM Method এর Formula’র সাহায্যে আন্তর্জাতিক ভাষা ইংরেজিতে এত দ্রুত কথোপকথন শেখা সম্ভব যা শিক্ষাক্ষেত্রে সত্যিই এক বিষ্ময়কর তাঁর আবিষ্কার। জনাব মুকুল মুন্সীগঞ্জ জেলার ‘টরকী’ গ্রামে ৭ ডিসেম্বর ১৯৫৯ ইং তারিখে জন্মগ্রহণ করেন। পিতা আলহাজ্ব আবুল বাসার মৌলভীবাজার জেলার পাত্রকলা চা বাগানে চাকুরিরত থাকায় তাঁর প্রাথমিক শিক্ষা শুরু হয় ওই বাগানেরই এক স্কুলে। তিনি আদমপুর এম.এ ওহাব হাইস্কুল থেকে ১৯৭৫ সালে বিজ্ঞান শাখায় মাধ্যমিক স্কুল পাস করেন। ১৯৭৮ সালে হরগঙ্গা কলেজ, মুন্সিগঞ্জ থেকে একই বিভাগে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করেন। ১৯৮১ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে সম্মান ডিগ্রি লাভ করেন। একই বিষয়ে ১৯৮৩ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমএ ডিগ্রী লাভ করেন। ছাত্রজীবনে ১৯৮০ ও ১৯৮১ সালে স্যার এএফ রহমান হল ছাত্র সংসদ এবং চাকসু কর্তৃক আয়োজিত সাহিত্য প্রতিযোগিতায় ইংরেজি বিতর্ক ও বক্তৃতায় তিনি পাঁচবার সনদপ্রাপ্ত হন। অধ্যাপনা জীবন শুরু হয় হাবীব জামান কলেজ গুলশান, ঢাকায়। পরে মুন্সীগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজ, মুন্সীগঞ্জ এবং সরকারি বাঙলা কলেজ মিরপুরে ইংরেজি বিভাগে অধ্যাপনা করেন। তিনি সরকারি মাদ্রাসা-ই-আলিয়া ঢাকাতেও অধ্যাপনা করেছেন। তথন মাদ্রাসা শিক্ষা ব্যবস্থায় ফাজিল শ্রেণিকে ডিগ্রীর মান দেওয়ার জন্য গঠিত মাঠ পর্যায়ের বিশেষজ্ঞ হিসেবে তিনি এ ব্যাপারে জোরালো বক্তব্য, যুক্তি ও পরামর্শ তুলে ধরেন। এই কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতেই ফাজিলকে ডিগ্রীর মানে উন্নীত করা হয়। উল্লেখ্য জনাব মুকুল Proper Methodology of Teaching English for the Bengali Speaking People’ এর উপর গবেষণা করে FM Method তৈরি কারণ তিনি অনেক দেশি এবং বিদেশি পুরস্কারে ভূষিত হন। তিনি 37th Foundation Training for BCS General Education-G English Debate Competition এ Champion হবার গৌরব অর্জন করেন। প্রচলিত ইংরেজি শিক্ষাদান পদ্ধতিকে ব্যর্থ প্রমাণ করে এর প্রতিবাদস্বরূপ স্বেচ্ছায় তিনি ২০০৩ সালে সরকারি চাকুরি পরিত্যাগ করেন। এযাবৎ তিনি ১টি স্কুল, ২টি কলেজ ও সারাদেশে FM Institute এর অনেকগুলো ক্যাম্পাস প্রতিষ্ঠা এবং অনেকগুলো বই রচনা করেন। বর্তমানে তিনি ঢাকার মিরপুরে তার নিজের প্রতিষ্ঠিত ও ফিরোজ মুকুল এ্যাডুকেশন ফাউন্ডেশন কর্তৃক পরিচালিত ও সরকার কর্তৃক স্বীকৃত এফএম ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষের পদে নিয়োজিত আছেন। এছাড়া তিনি FM English Language Teaching Research Institute এর গবেষক এবং CEO । 
১/১১ এর সরকার তাঁকে প্রথমে মুন্সিগঞ্জ জেলা পরিষদের প্রশাসক এবং পরে শিশু একাডেমির মহাপরিচালক হবার জন্য অনুরোধ করলে তিনি তাতে আগ্রহী না হয়ে বরং ইংরেজি শিক্ষাদান পদ্ধতির সংস্কারক হিসেবে নিরলস কাজ করে যেতে বেশি আগ্রহ প্রকাশ করেন। 
দেশের সীমানা পেরিয়ে বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত FM Method 

 

about-image



Achievement of International Awards 
১। তিনি প্যারিস (ফ্রান্স) থেকে World Quality Commitment International Star Award -2009 প্রাপ্ত হন। 
২। তিনি লন্ডন (গ্রেট ব্রিটেন) থেকে London Quality Crown Award-2010 প্রাপ্ত হন। 
৩। তিনি ভারত থেকে সৃজন বার্তা মৈত্রী সম্মাননা - ২০১৩ প্রাপ্ত হন। 

এছাড়াও তিনি আরো অনেক পুরষ্কারের জন্য মনোনীত হয়ে আছেন। যার মধ্যে নি¤েœর কয়েকটি উল্লেখযোগ্য: ক) International Arch of Europe for Quality Award from Germany. খ) International Quality Summit Award from New York. গ) International Star Quality Award from Switzerland. ঘ) European Society for Quality Research from Belgium. 
FM স্যারের অর্জিত সাফল্য 
১। প্রতিষ্ঠাতা সদস্য পাইওনিয়ার কলেজ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা। 
২। প্রতিষ্ঠাতা ও অধ্যক্ষ এফএম ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজ মিরপুর, ঢাকা 
৩। বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫ বার English Debate ও Set Speech Competition এ Certified 
৪। BCS Education Cadre এ English Debate Competition এ Gold Medalist 

এছাড়াও তিনি 
বাফেসাপ স্বাধীনতা পদক- ২০০৫, আমরা কুঁড়ি পদক- ২০০৫, দৈনিক আমার দেশ স্বীকৃতি স্মারক, সালেহীন মেমোরিয়াল অ্যাওয়ার্ড-২০০৫, স্বাধীনতা সংসদ অ্যাডুকেশন অ্যাওয়ার্ড-২০০৬, জিয়া স্মৃতিপদক-২০০৬, মানবাধিকার স্বর্ণপদক-২০০৬, প্রিন্সেস ডায়না গোল্ড মেডেল-২০০৭, মহাত্মা গান্ধী পুরস্কার-২০০৮, নওয়াব ফয়জুন্নেসা স্বর্ণপদক-২০০৮, আবু জাফর ওবায়দুল্লাহ পুরস্কার-২০০৯, গুণীজন সংবর্ধনা-২০০৯, বঙ্গবন্ধু অ্যাওয়ার্ড-২০০৯, অতীশ দীপঙ্কর স্মৃতি পদক-২০০৯, ঢাকা রতœ-২০০৯, হেলেন কেলার গোল্ড মেডেল-২০০৯ লাভ করেন।